২৪ ঘন্টায় একজনের মৃত্যু; লকডাউন প্রত্যাহার করছে স্পেন

ছবিঃ মুবিন খান

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের তান্ডবে বিপর্যস্ত দেশ ছিল স্পেন। ক’দিন আগে ইউরোপের এই দেশে প্রতিদিন মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৫০০ এর উপরে। বর্তমানে করোনাভাইরাস কে পরাজিত করে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছে স্পেনের নাগরিকরা। জরু‌রি অবস্থা প্রত্যাহারসহ চালু হচ্ছে ফ্লাইট।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসেছে স্পেন। দেশটিতে সর্বশেষ গতকাল বুধবার (২৭ মে) করোনায় মৃতের সংখ্যা একজন। করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার কমতে থাকায় স্বাভাবিক হচ্ছে জীবনযাত্রা। আগামী ৭ জুন থেকে তুলে নেয়া হচ্ছে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা। খুলবে বিমানবন্দর। চালু হচ্ছে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। সেই সঙ্গে পর্যটনের হাল ফিরিয়ে আনতে ইতোমধ্যেই পরিকল্পনা শুরু করেছে স্পেন সরকার। এদিকে নতুন কোনো ঘোষণা না আসলে পূর্ব-নির্ধারিত ৭ জুন দেশটির জরুরি অবস্থা তুলে নেয়া হবে।

এদিকে দেশটিতে করোনাভাইরাস মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তিদের শ্রদ্ধা জানাতে ১০ দিনের বিশেষ শোক ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। বুধবার (২৭ মে) থেকে শুরু হয়ে আগামী ১০ দিন অর্থাৎ ৫ জুন পর্যন্ত দেশজুড়ে জাতীয় শোক পালন করা হবে।

মঙ্গলবার (২৬ মে) মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান দেশটির সরকারের মুখপাত্র মারিয়া জেসুস। তিনি বলেন, এই সময়ে দেশের সরকারি সকল ভবনে পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে। নৌবাহিনীর জাহাজেও পতাকা অর্ধনমিত থাকবে।

গত দুই সাপ্তাহ ধরে স্পেনে করোনা আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে। কিন্তু কয়েকদিন আগেও এই বৈশ্বিক মহামারির কারণে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছিল ইউরোপের অত্যন্ত শিল্পোন্নত এবং অর্থনৈতিক সমৃদ্ধশালী এই দেশটি। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে মারা যান দেশটির প্রায় ২৮ হাজার মানুষ। বিশ্বে যে কয়টি দেশ করোনার ভয়াবহ তাণ্ডবের করুণতম দৃশ্য দেখেছিল স্পেন ছিল সেই তালিকার প্রথম সারিতে। দেশটির চিকিৎসা, শিক্ষা, শিল্প, কৃষি, খেলাধুলাসহ অর্থনৈতিক, সামাজিক, ধর্মীয় ও রাজনৈতিক কোনো কিছু বাদ যায়নি এ ভাইরাসটির করাল থাবা থেকে। দেশটির ভূখণ্ডের প্রতি ইঞ্চি মাটি এক অদৃশ্য যুদ্ধ ময়দানে পরিণত হয়েছিল।

ওয়াল্ডওমিটারের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে সারা বিশ্বে আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে স্পেন।

ছবিঃ মুবিন খান

ইউরোপের এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ২৭ হাজার ১১৮ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৮৩ হাজার ৮৪৯ জন। করোনার সংক্রমণ এবং মৃত্যু কমে আসায় দেশটিতে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও খুলে দেয়া হয়েছে কলকারখানা, বাণিজ্যিক বিভিন্ন সেক্টর এবং গণপরিবহন। জুনের প্রথম সপ্তাহের শেষের দিকে লকডাউন তুলে নেয়ার প্রস্তাবনা ইতোমধ্যে দেশটির সংসদে দেয়া হয়েছে। নতুন কোনো ঘোষণা না আসলে পূর্ব-নির্ধারিত ৭ জুন দেশটির জরুরি অবস্থা তুলে নেয়া হবে। তবে বাইরে চলাচলের ক্ষেত্রে বিরাজমান থাকবে বেশ কিছু শৃঙ্খলা বিধি।

এদিকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে ইউরোপে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ দুটি দেশ স্পেন ও ইতালির জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) ৭ লক্ষ ৫০ হাজার মিলিয়ন (৭৫ হাজার কোটি) ইউরোর আর্থিক সহযোগিতা ঘোষণা করেছে। করোনা মহামারি পরবর্তী অর্থনৈতিক বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠার ক্ষেত্রে সহযোগিতার উদ্দেশে ইইউ এই ঘোষণা দিলো।

এ ঘোষণায় স্পেনের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১ লক্ষ ৪০ হাজার মিলিয়ন (১৪ হাজার কোটি) ইউরো। যা ভবিষ্যতে ইইউকে পরিশোধ করতে হবে না। শুধু কোন কোন খাতে খরচ করেছে, সেই হিসেব দিতে হবে ইইউকে।

Share:

Share on facebook
Share on twitter

Leave a comment

Your email address will not be published.

Others Post

Sponsor

Related Article

স্পেনে করোনাকালীন মানবসেবায় সম্মাননা পেলেন ১৭ জন বাংলাদেশী

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে মহামারী করোনাকালীন সময়ে সঙ্কটাপন্ন অসহায় প্রবাসী এবং বাংলাদেশিদের সহযোগিতায় স্বেচ্ছায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, দুভাষীসহ স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করে বিশেষ সম্মাননা পেলেন ১৭

Read More »

দূর্যোগকালীন ঈদ!

কখনো বন্যা, কখনো করোনা। সকল দূর্যোগের উপর দাড়িয়েই সব সময় হাসিমুখে জানাতে হয় ঈদের শুভেচ্ছা। এবার-ও তার ব্যাতিক্রম নয়। দেশের বাইরে এসেও দূর্যোগের সাথে যুদ্ধ

Read More »

উপজেলাবাসীর কাছে এক অদ্ভুত মিলনের গল্প

রাজনগর আওয়ামিলীগের দুই মুকুটহীন সম্রাট। শুধু আওয়ামিলীগের না রাজনগরের রাজনীতিরও বলতে পারেন। স্থানীয় নির্বাচন কিংবা রাজনৈতিক গ্রুপিং দ্বন্দ্বে দুইজন অনেক সময় দুই প্রান্তে অবস্থান করলেও

Read More »